Home / আর্ন্তজাতিক / পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ 

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

পাকিস্তানের পরবর্তী সেনা প্রধান কে হবে তা নিয়ে বড় ভাই নওয়াজ শরিফের সঙ্গে আলোচনা করায় রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ উঠেছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের বিরুদ্ধে। পাকিস্তানের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে ভারতের বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, পাঞ্জাব প্রদেশের পার্লামেন্টারি অ্যাফেয়ার্স সম্পর্কিত মন্ত্রী বাশারাত রাজা সোমবার প্রাদেশিক আইনসভার অধিবেশনে পাক প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে একটি রেজুল্যুশন উত্থাপন করেন।

সেখানে বলা হয়, পাকিস্তানের সামরিক বাহিনীর প্রধান হিসেবে কোন সেনা কর্মকর্তাকে নিয়োগ দেওয়া হবে তা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ তার বড়ভাই নওয়াজ শরিফের সঙ্গে সে সম্পর্কে আলোচনা ও শলা-পরামর্শ করেছেন। দুই দিন আগে লন্ডনে নওয়াজ-শাহবাজের এই আলোচনা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। এই রেজ্যুলেশনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন পাঞ্জাবের আইনসভার বেশিরভাগ সদস্য।  রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যোগ দিতে কয়েক দিন আগে যুক্তরাজ্যে গিয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই বড় ভাই নওয়াজ শরিফের সঙ্গে তিনি সাক্ষাৎ করেন বলে জানা গেছে। পাকিস্তানের তিন বারের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ব্যাপক দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত ও আদালতের দণ্ডপ্রাপ্ত। দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তিনি জাতীয় রাজনীতি থেকে নির্বাসিত এবং আদালতের দণ্ড এড়াতে বর্তমানে বিদেশে পলাতকের জীবনযাপন করছেন। পাকিস্তানের বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া চলতি বছরের নভেম্বরের শেষের দিকে অবসরে যাচ্ছেন। সম্প্রতি পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী খুররামও জানিয়েছেন, পাকিস্তানের পরবর্তী সেনা প্রধান কে হবে তা নিয়ে বড় ভাই নওয়াজ শরিফের সঙ্গে আলোচনা করেছেন শাহবাজ শরিফ। এই বক্তব্যের পর পাকিস্তানের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের বিরুদ্ধে ব্যবহার নেওয়ার দাবি জানিয়েছে ইমরান খানের দল পিটিআই।

Check Also

প্রমোশন না দেওয়ায় বসসহ পুরো পরিবারকে হত্যা!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক প্রমোশন না দেওয়ায় অফিসের বসসহ তার পুরো পরিবারকে হত্যার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x