Breaking News
Home / খেলাধুলা / হারের কারণ দুই ইনিংসের প্রথম ঘণ্টা : মুমিনুল

হারের কারণ দুই ইনিংসের প্রথম ঘণ্টা : মুমিনুল

স্পোর্টস ডেস্ক  :  সাদা পোশাকের ক্রিকেট এলেই সেই চিরাচরিত ফল। পরাজয়ের বিবর্ণ গল্প ছাড়া আর কিছুই নেই। পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্টে লিড নিয়েও হারতে হয়েছে বড় ব্যবধানে। পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনে পাকিস্তান জিতে যায় ৮ উইকেটে। আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় আসরে বাংলাদেশের যাত্রা শুরু হয় হার দিয়ে।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) ম্যাচ শেষে বাংলাদেশ অধিনায়ক জানালেন হারের কারণ। তার মতে চট্টগ্রাম টেস্টের দুই ইনিংসের প্রথম ঘণ্টা পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। যার ফলে মাঠ ছাড়তে হয়েছে হারের তিক্ত স্বাদ নিয়ে।

‘আমি মনে করি দুই ইনিংসের প্রথম ঘণ্টাই আমাদের হারের কারণ। প্রথম ইনিংসে মুশফিকুর এবং লিটন এগিয়ে নেয় দলকে। যদি আমরা আরো ১০০ রান পেতাম তাহলে ভিন্ন কিছু হতো’- ঠিক এভাবেই বলেছেন মুমিনুল।

টস জিতে ব্যাটিং করতে নেমে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ৪৯ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে। সেই ধাক্কা সামলে ওঠে মুশফিক-লিটনের ২০৬ রানের জুটিতে। লিটন সেঞ্চুরি করেছিলেন আর মুশফিক তিন অঙ্ক ছুঁতে পারেননি ৯ রানের জন্য। দ্বিতীয় ইনিংসে অবস্থা আরো করুণ। ৪৪ রানের লিড নিয়ে খেলতে নেমে ৪ উইকেট হারিয়ে ফেলে ২৫ রানে। এবার আর মুশফিক দাঁড়াতে পারেননি। লিটন আর নবাগত ইয়াসির আলী ধকল কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছিলেন। ইয়াসিরের মাথায় আঘাতে সেই আশারও সমাপ্তি হয়।

লিটনের হাফ সেঞ্চুরিতে ১৫৭ রান করে বাংলাদেশ। পাকিস্তানের সামনে টার্গেট দাঁড়ায় ২০২ রান। যা এক প্রকার তুড়ি মেরে উড়িয়ে দেয় বাবর আজমের দল।

দুই ইনিংসেই টপ অর্ডাররা ব্যর্থ। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম-সাইফ হাসান রান পাননি। তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। আর অধিনায়ক মুমিনুল নিজেও দলের বিপদে হাল ধরতে পারেননি। আউট হয়ে উল্টো আরো বিপদ বাড়িয়েছেন। ব্যাট হাতে রান করে আরো বড় লজ্জা থেকে রক্ষা করেছেন মিডল অর্ডার ও টেল এন্ডার ব্যাটসম্যানরা।

শুরুতেই ব্যাটিং ধসের প্রতিক্রিয়ায় অধিনায়ক জানান, ‘নতুন বলে আমাদের উন্নতি করতে হবে।‘ আর কত হার, কত বিপর্যয়ের সেই উন্নতি ধরা দেবে!

Check Also

হ্যামিল্টনে নিউ জিল্যান্ডের কাছে ভারতের আত্মসমর্পণ

খেলাধুলা ডেস্ক : ভারতের বিবর্ণ ব্যাটিং পারফরম্যান্স। নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে সেই চিরচেনা আত্মসমর্পণ। আইসিসি নারী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x