Home / আর্ন্তজাতিক / নারীদের সমাবেশে অংশ নিতে বাধ্য করছে তালেবান

নারীদের সমাবেশে অংশ নিতে বাধ্য করছে তালেবান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  :  আফগানিস্তানের কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ে বোরকা পরিয়ে নারীদের জোর করে নিজেদের পক্ষে সমাবেশে অংশ নিতে বাধ্য করেছে তালেবান। যুক্তরাষ্ট্রে ৯/১১ হামলার বর্ষপূর্তিতে এই সমাবেশ হয়েছিল। বিক্ষোভে অংশগ্রহণে অনিচ্ছুক নারীদের বহিষ্কারেরও হুমকি দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

নারীদের তালেবান এবং ইসলামের কঠোর ব্যাখ্যাসহ প্ল্যাকার্ড দেওয়া হয়েছিল, যার মধ্যে পুরুষ এবং নারীদের জন্য পৃথক শিক্ষা অন্তর্ভুক্ত ছিল।

শিক্ষামন্ত্রী আব্দুল বাকি হাক্কানি ছেলে-মেয়েদের একসঙ্গে পড়াশোনা বন্ধের ব্যাপারে কোনো অনুশোচনা নেই জানিয়ে বলেন, ছেলে-মেয়েদের একসঙ্গে পড়াশোনা বন্ধ করার ব্যাপারে আমরা তেমন কোনো সমস্যা দেখি না। কারণ দেশের মানুষ মুসলিম এবং তারা এটা মেনে নেবে।

তালেবান মুখপাত্র সৈয়দ জেকেরুল্লাহ হাশিমি আফগানিস্তানের প্রথম স্বাধীন সংবাদ চ্যানেল টোলো নিউজকে মন্তব্য করে বলেছিলেন, নারীরা মন্ত্রী হতে পারেন না। নারীদের মন্ত্রিসভায় থাকতে হবে না।

আফগানিস্তানের একজন ফ্রিল্যান্সার সাংবাদিক নাতিক মালিকজাদা টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় নারীদেরকে জোর করে তালেবানের পক্ষে মাঠে নামানোর বিষয়টি তুলে ধরেন।

টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, কাবুল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী শিক্ষার্থী জানিয়েছেন, এক ঘণ্টার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে জড়ো হতে আমাদেরকে চাপ দেয় তালেবান। এর জন্য কালো বোরকা তারাই আমাদের দিয়েছিল। তারা আমাদেরকে বলেছিল- তাদের কথা অনুযায়ী সেখানে হাজির না হলে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কার করা হবে।

চলতি মাসের শুরুতেই তালেবানের পক্ষ থেকে ঘোষণা আসে, নারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে পারবেন যদি তারা বোরকা ও নিকাব পড়ে আপাদমস্তক শরীর ঢেকে রাখেন। এছাড়া ছেলে ও মেয়ে শিক্ষার্থীদের আলাদা পাঠদানের ব্যবস্থা করতে হবে।

Check Also

সিঙ্গাপুর-মালয়েশিয়ার চেয়ে বাংলাদেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি ভালো : স্থানীয় সরকারমন্ত্রী

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :     বিভিন্ন দেশের ডেঙ্গু আক্রান্তের তথ্য তুলে ধরে স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x