Home / জাতীয় / ভাসানচর ইস্যুর সমাধান হয়ে গেছে : শাহরিয়ার আলম

ভাসানচর ইস্যুর সমাধান হয়ে গেছে : শাহরিয়ার আলম

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :     রোহিঙ্গাদের ভাসানচর স্থানান্তর ইস্যুর সমাধান হয়ে গেছে। এটা এখন আর কোনো ইস্যু নয় বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

বুধবার (২১ এপ্রিল) বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড স্ট্র্যাটেজিক স্ট্যাডিজ (বিআইআইএসএস) আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি একথা জানান।

‘রোহিঙ্গা সংকট: আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সাড়াদান ও প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া’ শীর্ষক ভার্চ্যুয়াল সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেন, জাতিসংঘসহ বিভিন্ন বন্ধুরাষ্ট্রের প্রতিনিধিরা ভাসানচর পরিদর্শন করেছেন। মতভেদ হওয়ার মতো কোনো বিষয় তারা পাননি। তবে জাতিসংঘের কিছু ছোটখাটো সুপারিশ রয়েছে। আমরা আশা করছি, কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মতোই তারা এখানে সহায়তার জন্য এগিয়ে আসবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে আমরা অনেক বন্ধুরাষ্ট্রের প্রতি সন্তুষ্ট, আবার অনেক বন্ধুরাষ্ট্রের অবদান ও অবস্থান নিয়ে সন্তুষ্ট হতে পারছি না। আবার অনেকের রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য ভূমিকা না রেখে এখানে কীভাবে রাখা যায়, সেই চেষ্টা ছিল। এটা আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘসহ অন্য রাষ্ট্রের যতটুকু করার আছে তারা এখনো করেনি। তবে তাদের বিষয়ে উপসংহারে আসার মতোও এখনো অবস্থা আসেনি।

সেমিনারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, চীন ও ভারত তাদের সীমান্ত, বাণিজ্য, ভূ-রাজনৈতিক ইত্যাদি বিষয় বিবেচনায় নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে চলেছে। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারত, চীন, জাপানের সঙ্গে আলোচনা অব্যাহত রাখতে হবে।

তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের সিভিল সোসাইটিকে সম্পৃক্ত করতে হবে। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যার জন্যই ভারতের সিভিল সোসাইটি আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। রোহিঙ্গা ইস্যুতে ভারতের সিভিল সোসাইটি সরব হলে ভারত সরকার ভূমিকা নিতে বাধ্য হবে। একইভাবে জাপানের ক্ষেত্রেও একথা প্রযোজ্য।

তিনি বলেন, অনেক দেশ রোহিঙ্গা শব্দ ব্যবহার করে না। তারা বলে স্থানচ্যুত। বাংলাদেশকে এ বিষয়ে ভূমিকা নিতে হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক দেলোয়ার হোসেন বলেন, মিয়ানমার সংকট দ্রুত সমাধান না করতে পারলে এই অঞ্চলে অস্থিতিশীলতা বাড়ার আশংকা রয়েছে। এই সংকট সমাধানে সবার সমান দায়িত্ব রয়েছে।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) সাখাওয়াত হোসেন বলেন, আসিয়ানের দেশগুলো রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে অতীতে জোরালো ভূমিকা নেয়নি। আসন্ন আসিয়ান সামিটেও তারা এই সংকট নিয়ে ভূমিকা রাখবে সেটা প্রত্যাশা করা যায় না।

তিনি মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয়ভাবে এই সংকট সমাধান জোর দেন।

সেমিনার সঞ্চালনা করেন বিআইআইএসএস মহাপরিচালক মেজর জেনারেল এমদাদ উল বারী। এতে আরো বক্তব্য রাখেন সাবকে রাষ্ট্রদূত হুমায়ুন কবির, সাবেক রাষ্ট্রদূত মুন্সী ফয়েজ আহমদ প্রমুখ।

Check Also

করোনায় একদিনে ১১ হাজার মানুষের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  :  বিশ্বজুড়ে করোনা মহামারিতে মৃতের সংখ্যা ৩৩ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। শনাক্ত পৌঁছেছে ১৫ কোটি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *