Home / খেলাধুলা / শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ঢেলে সাজাচ্ছে

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট ঢেলে সাজাচ্ছে

স্পোর্টস ডেস্ক  :   শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের পুরোনো ঐতিহ্য, পেশাদারিত্ব ও মাঠে পারফরম্যান্স ফেরাতে ঢেলে সাজাচ্ছে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয় ক্রিকেট উন্নতিতে একটি ডেভেলাপমেন্ট কমিটি তৈরি করেছে। কমিটির প্রধান করা হয়েছে শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী ক্রিকেটার অরবিন্দ ডি সিলভাকে।

ক্রিকেটের সেই কমিটিতে যুক্ত করা হয়েছে তিন গ্রেট রোশান মোহানামা, মুত্তিয়া মুরালিধরণ ও কুমার সাঙ্গাকারাকে। এরই মধ্যে কমিটি দায়িত্ব নিয়ে কাজ শুরু করেছে। ক্রিকেটের উন্নতিতে শুরুতেই আদর্শ কাঠামো তৈরির কথা জানিয়েছেন কমিটি। সেই কাঠামো প্রস্তুতির দায়িত্ব দিতে যাচ্ছে সাবেক অস্ট্রেলিয়ান গ্রেট টম মুডিকে।

অভিজ্ঞ টম মুডিকে ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে নিয়োগ দিচ্ছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট। তিন বছরের চুক্তিতে তাকে আবারও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে ফেরাচ্ছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) । এর আগে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের কোচ হিসেবে কাজ করেছেন সাবেক অস্ট্রেলিয়ান গ্রেট। ২০০৫ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেছিলেন তিনি। ২০০৭ সালে তার অধীনে শ্রীলঙ্কা বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছিল।

দেশের ভেতরে সঠিক ক্রিকেট কাঠামো প্রস্তুত এবং অন্যান্য দেশের ক্রিকেট কাঠামো অনুসরণ করে, যেমন অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ভারত যেসব প্রযুক্তি, অনুশীলনের সুযোগ সুবিধা ব্যবহার করছে সেগুলো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে যুক্ত করা।

অরভিন্দ ডি সিলভা ক্রিক ইনফোকে বলেন,‘আমি মনে করি তিনি একজন স্বাধীন মানুষ যার ভিন্ন চিন্তা, ভাবনা রয়েছে। তিনি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন, সেখানের কাঠামো সম্পর্কে ধারণা রয়েছে। আইপিএলেও যুক্ত হয়েছেন। কাউন্টি ক্রিকেটেও ছিল তার উপস্থিতি। সব মিলিয়ে তার অভিজ্ঞতা দারুণ। আমাদের কমিটির প্রথম সুপারিশ ছিল এমন একজনকে বেছে নেওয়া যে কিনা দায়িত্বশীল এবং নিরপেক্ষ হয়ে নির্দিষ্ট দিকগুলোতে খোলামনে কাজ করবে।’

টম মুডি এখন আইপিএলের দল সানরাইজার্স হায়দরাবাদের ক্রিকেট ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্বে আছেন। চুক্তি পাকাপাকি হলে আইপিএলের পরপরই শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটে যুক্ত হবেন তিনি।

Check Also

বিসিবি সভাপতির ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধে আইনি ব্যবস্থা

স্পোর্টস ডেস্ক  :   বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের কোনও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নেই। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *