Home / খেলাধুলা / ‘সময় কমছে’, দল নিয়ে বাংলাদেশে আসতে চান ওয়ালশ

‘সময় কমছে’, দল নিয়ে বাংলাদেশে আসতে চান ওয়ালশ

স্পোর্টস ডেস্ক  :   আগামী জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার মাটিতে বসবে নারী বিশ্বকাপের কোয়ালিফায়ার। তার আগে প্রস্তুতির জন্য বাংলাদেশে আসার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ নারী ক্রিকেট দলের হেড কোচ কোর্টনি ওয়ালশ। যিনি দীর্ঘদিন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন।

করোনাভাইরাসের কারণে লম্বাসময় ক্রিকেট থেকে বাইরে ছিল উইন্ডিজ নারী দল। জুলাইয়ে যেহেতু উপমহাদেশে হবে বিশ্বকাপ কোয়ালিফায়ার। তাই বাংলাদেশ বা ভারতে সফর করতে চান ওয়ালশ। কেননা তাদের হাতে খুব বেশি সময় নেই। ওয়ালশ জানিয়েছেন, এক্ষেত্রে বেশি আগ্রহ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ।

অনলাইন প্রেস কনফারেন্সে ওয়ালশ বলেন, ‘আমাদের হাতে খুব বেশি সময় নেই। বর্তমানে আমাদের মূল এজেন্ডা হলো কোয়ালিফায়ার। আমাদেরকে কোয়ালিফায়ারের জন্য প্রস্তুত হয়ে যেতে হবে এবং এর জন্য যা প্রয়োজন সবই করতে হবে। আমরা যেকোনো সফরে যাওয়ার আশা করছি। এটা হয়তো বাংলাদেশ বা ভারত হতে পারে। এখনও কথা চূড়ান্ত হয়নি। তবে বাংলাদেশ বেশ আগ্রহ প্রকাশ করেছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমরা আশাবাদী যে যেকোনো একটা সফর করতে পারব। বিশেষ করে উপমহাদেশে করতে চাইছি কারণ কোয়ালিফায়ার হবে শ্রীলঙ্কায়। তাই বাংলাদেশ বা ভারতই আমাদের জন্য আদর্শ হবে। একবার সফরের বিষয়ে নিশ্চিত তথ্য পেলে আমরা প্রস্তুতি ক্যাম্প এবং প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরার প্রক্রিয়া জোর দিয়ে শুরু করতে পারব।’

এরই মধ্যে রোববার অ্যান্টিগায় শুরু হয়ে গেছে ২৪ জনের অনুশীলন ক্যাম্প। যা পুরোপুরি জৈব সুরক্ষিত। হেড কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর প্রাথমিকভাবে এটির কথাই বলেছিলেন ওয়ালশ। যেনো করোনা প্রটোকল মেনেও খেলোয়াড়দের নিয়ে জৈব সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে অনুশীলন কার্যক্রম শুরু করতে পারেন তিনি।

২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর আর সে অর্থে উন্নতি হয়নি উইন্ডিজ নারী ক্রিকেট দলের। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি; উভয় ফরম্যাটেই তারা নেমে গেছে র‍্যাংকিংয়ের ছয় নম্বর স্থানে। এ অবস্থা থেকে ঘুরে দাঁড়াতে বদ্ধ পরিকর কিংবদন্তি ওয়ালশ।

Check Also

ব্যাটে-বলে হতাশ করলেন সাকিব

স্পোর্টস ডেস্ক  :   ভক্ত ও সমর্থকরা অধীর অপেক্ষায় ছিলেন, আশায় উন্মুখ হয়েও ছিলেন। কিন্তু কঠিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *