Home / অর্থনীতি / লেনদেন শুরুর আগেই সূচক নেই ৪০ পয়েন্ট

লেনদেন শুরুর আগেই সূচক নেই ৪০ পয়েন্ট

অর্থনীতি ডেস্ক  :  সম্প্রতি যেসব কোম্পানির শেয়ার দাম অস্বাভাবিক বেড়েছে বা কমেছে তার কারণ তদন্তের নির্দেশ দেয়ার পর বুধবার (১৩ জানুয়ারি) লেনদেনের শুরুতে শেয়ারবাজারে পতন প্রবণতা দেখা দিয়েছে।

প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন শুরুর আগেই প্রধান সূচক ৪০ পয়েন্ট পড়ে যায়। প্রি-ওপেনিং সিস্টেম চালু থাকায় লেনদেন শুরুর আগেই সূচকের এই বড় পতন হয়।

গত ৩০ কার্যদিবসের মধ্যে যেসব কোম্পানির শেয়ারের দাম ৫০ শতাংশ বেড়েছে বা কমেছে, এর পেছনে কোনও কারসাজি রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে গত মঙ্গলবার দুই স্টক এক্সচেঞ্জকে নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

বিএসইসির এ সংক্রান্ত চিঠিতে গত এক মাসে যেসব কোম্পানির গড় লেনদেনের পরিমাণ আগের ছয় মাসের গড় লেনদেনের চেয়ে পাঁচগুণের বেশি বেড়েছে, যেসব কোম্পানির বার্ষিক বা প্রান্তিক শেয়ার প্রতি মুনাফা (ইপিএস) আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৫০ শতাংশের বেশি উত্থান-পতন ঘটেছে, মূল্য সংবেদনশীল তথ্য (পিএসআই) প্রকাশের আগের ১০ কার্যদিবসে যেসব কোম্পানির দাম ও লেনদেন ৩০ শতাংশের কম-বেশি হয়েছে, সেসব কোম্পানির বিষয়েও তদন্ত করতে বলা হয়েছে।

তদন্ত শেষে আগামী ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থার বিএসইসির চিঠিতে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থার এমন নির্দেশ আসার পর বুধবার লেনদেন শুরু হওয়ার আগে থেকেই বিক্রির চাপ বেড়ে যায়। প্রি-ওপেনিং চালু থাকায় অনেক বিনিয়োগকারী লেনদেন শুরুর আগেই শেয়ারের দাম কমিয়ে বিক্রির প্রস্তাব দেন।

এতে ডিএসইতে লেনদেন শুরু হওয়ার আগেই প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪০ পয়েন্ট পড়ে যায়। আর লেনদেন শুরুর প্রথম মিনিটে সূচকটি ৪৬ পয়েন্ট কমে যায়। এরপর সূচকের পতন প্রবণতা কিছুটা কমলেও ১০টা ২০ মিনিটের পর আবার বড় পতনের মধ্যে সূচক।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে ডিএসইর প্রধান সূচক কমেছে ৭৩ পয়েন্ট। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ কমেছে ১৭ পয়েন্ট। আর ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ৩৩ পয়েন্ট।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৯৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯২টির আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৭টির।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দর পতনে মূল্য সূচকের বড় পতন হলেও লেনদেনে বেশ ভালো গতি দেখা যাচ্ছে। মাত্র ৪০ মিনিটে ডিএসইতে ৬৪০ কোটি ৪২ লাখ টাকার লেনদেন হয়ে গেছে।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২১৫ পয়েন্ট কমেছে। লেনদেন হয়েছে ৪৬ কোটি ১২ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ১৩৪ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ২৭টির, কমেছে ৯৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১১টির।

Check Also

বিনা শুল্কে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী আমদানির মেয়াদ বাড়ল

অর্থনীতি ডেস্ক  :  করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির প্রধান কাঁচামাল, এন-৯৫ ও কেএন-৯৫ মাস্ক, ফেস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *