Breaking News
Home / আর্ন্তজাতিক / ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার পক্ষে নন পেন্স

ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার পক্ষে নন পেন্স

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  :  যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল ভবনে হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার দাবি তুলেছে বিভিন্ন মহল। ইতোমধ্যেই তার বিরুদ্ধে কংগ্রেসে অভিশংসনের প্রস্তাব আনতে যাচ্ছেন ডেমোক্র্যাটরা। কিন্তু এর বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।

মঙ্গলবার কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পোলোসিকে মাইক পেন্স জানিয়েছেন যে, তিনি ২৫তম সংশোধনীর বিরোধী। এভাবে তিনি ট্রাম্পকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে একমত নন।

গত সপ্তাহে ক্যাপিটল হিলে ভয়াবহ সহিংসতার ঘটনা ঘটে। এটি ছিল যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নজিরবিহীন হামলার ঘটনা। সহিংসতা উস্কে দেয়ার অভিযোগে ইতোমধ্যেই ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চাপ বাড়ছে।

আগামী ২০ জানুয়ারি নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন ট্রাম্প। অর্থাৎ প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতায় থাকতে তার হাতে আর বেশিদিন সময় নেই। কিন্তু তার আগেই তাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চান ডেমোক্র্যাট দলের সদস্যরা। প্রতিনিধি পরিষদে তাকে অভিশংসনের একটি প্রস্তাবে বুধবার ভোটাভুটি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

লিখিত একটি চিঠিতে পেন্স বলেন, আমি বিশ্বাস করি না যে এ জাতীয় পদক্ষেপ আমাদের জাতীয় স্বার্থ রক্ষা করবে বা আমাদের সংবিধানের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে।

তবে প্রতিনিধি পরিষদের শীর্ষ নেতৃত্বে থাকা এক সদস্য-সহ কমপক্ষে তিনজন রিপাবলিকান সদস্য জানিয়েছেন, তারা ট্রাম্পকে অভিশংসনের পক্ষে ভোট দেবেন। ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় ট্রাম্প তার সমর্থকদের উস্কে দিয়েছেন বলে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে।

এদিকে এ বিষয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প বলছেন, ‘আমি মনে করি এটা (অভিশংসনের প্রস্তাব) আমাদের দেশের জন্য ভয়াবহ বিপদ ডেকে আনবে এবং ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি করবে। আমি কোন সহিংসতা চাই না।’

সংবিধানের ২৫তম সংশোধনী প্রয়োগ করার জন্য মাইক পেন্সের প্রতি আহবান জানিয়ে একটি প্রস্তাব প্রতিনিধি পরিষদে উত্থাপনের পরই তিনি তার মতামত জানিয়েছেন।

সম্প্রতি টেক্সাসে বক্তব্য দেয়ার সময় ট্রাম্প বলেছেন, ‘২৫তম সংশোধনীতে আমার জন্য কোন ঝুঁকি নেই। সেটা উল্টো জো বাইডেন এবং তার প্রশাসনের পেছনেই ফিরে আসবে।’

নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সিনেটে রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেল ঘনিষ্ঠদের বলেছেন যে, ডেমোক্র্যাটরা যে অভিশংসনের প্রস্তাব আনতে যাচ্ছে, তাতে তিনি খুশী। কেন্টাকির এই সিনেটর মনে করেন, এই সাজার ফলে রিপাবলিকান দল থেকে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অপসারণ করা সহজ হবে।

সংবিধানের ২৫তম সংশোধনীর মাধ্যমে কোন প্রেসিডেন্টকে ক্ষমতাচ্যুত করতে হলে সেক্ষেত্রে অবশ্যই ভাইস প্রেসিডেন্টের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া প্রয়োজন। এমনকি এই ঘোষণাও তার মাধ্যমেই আসতে হয়। কিন্তু পেন্স পরিষ্কারভাবেই জানিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি ট্রাম্পকে ক্ষমতাচ্যুত করার পক্ষে নন।

Check Also

খসড়া তালিকা প্রকাশ : নতুন ভোটার ১৪ লাখ ৬৫ হাজার ৪৬

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :     খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এই তালিকা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *