Home / ফটো গ্যালারি / শীতে শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করবেন যেভাবে

শীতে শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করবেন যেভাবে

এমনিতেই শুষ্ক ত্বক নিয়ে নাজেহাল হয়ে থাকা তারমধ্যে শীত এলে এমনিতেই আর্দ্রতা যায় হারিয়ে। তবে ত্বক যদি এমনিতেই শুষ্ক হয় কী শীত আর কী বা গ্রীষ্ম। ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অবশ্যই নেয়া যায়।

এমনিতেই শুষ্ক ত্বক নিয়ে নাজেহাল হয়ে থাকা তারমধ্যে শীত এলে এমনিতেই আর্দ্রতা যায় হারিয়ে। তবে ত্বক যদি এমনিতেই শুষ্ক হয় কী শীত আর কী বা গ্রীষ্ম। ত্বক বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অবশ্যই নেয়া যায়।

অ্যাভোকাডো ফলটা অন্য ফলের চেয়ে একটু দামী বটে, কিন্তু ত্বকের ক্ষেত্রে কাজে দেয় দ্রুত। অর্ধেক অ্যাভোকাডো চটকে তার সঙ্গে এক চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে লাগান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। বেশি শুষ্ক ত্বক হলে মধু মিশিয়ে নিতে পারেন।

অ্যাভোকাডো ফলটা অন্য ফলের চেয়ে একটু দামী বটে, কিন্তু ত্বকের ক্ষেত্রে কাজে দেয় দ্রুত। অর্ধেক অ্যাভোকাডো চটকে তার সঙ্গে এক চা চামচ অলিভ অয়েল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে লাগান। ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। বেশি শুষ্ক ত্বক হলে মধু মিশিয়ে নিতে পারেন।

শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করতে চাইলে সবচেয়ে বড় অস্ত্র হল অলিভ অয়েল। শুধু অলিভ অয়েল মুখে অল্প অল্প ঘষুন। তারপর একটা ভেজা গরম তোয়ালে মুখে থুপে থুপে লাগান। বাড়তি তেল মুছে নিন। অলিভ অয়েল শুধু যে ত্বকে আর্দ্রতা যোগায় তা নয়, এটি একটি প্রাকৃতিক ক্লেনজার ও স্ক্রাবও বটে। হাফ কাপ চিনি আর দুই টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। আলতো করে স্ক্রাব করুন। হয়ে গেলে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করতে চাইলে সবচেয়ে বড় অস্ত্র হল অলিভ অয়েল। শুধু অলিভ অয়েল মুখে অল্প অল্প ঘষুন। তারপর একটা ভেজা গরম তোয়ালে মুখে থুপে থুপে লাগান। বাড়তি তেল মুছে নিন। অলিভ অয়েল শুধু যে ত্বকে আর্দ্রতা যোগায় তা নয়, এটি একটি প্রাকৃতিক ক্লেনজার ও স্ক্রাবও বটে। হাফ কাপ চিনি আর দুই টেবিল চামচ চিনি মিশিয়ে স্ক্রাব তৈরি করে নিন। আলতো করে স্ক্রাব করুন। হয়ে গেলে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন।

অলিভ অয়েলের মতোই শুষ্ক ত্বকের আরও একটি বন্ধু হল ওটমিল। মানে যে ওটমিল প্রতিদিন ব্রেকফাস্টে খাওয়া হয় সেটার কথাই বলছি। কারণ স্বাস্থ্যরক্ষার পাশাপাশি ওটমিল কিন্তু শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতাও যোগায়। গোসলের আগে পানিতে অল্প একটু (আন্দাজ এক কাপ মতো) ওটমিল ছড়িয়ে দিন। ওটমিল ভেজানো পানি আপনার শরীর দিয়ে যখন প্রবাহিত হবে তখন সেটা ত্বক আর্দ্র করবে।

অলিভ অয়েলের মতোই শুষ্ক ত্বকের আরও একটি বন্ধু হল ওটমিল। মানে যে ওটমিল প্রতিদিন ব্রেকফাস্টে খাওয়া হয় সেটার কথাই বলছি। কারণ স্বাস্থ্যরক্ষার পাশাপাশি ওটমিল কিন্তু শুষ্ক ত্বকে আর্দ্রতাও যোগায়। গোসলের আগে পানিতে অল্প একটু (আন্দাজ এক কাপ মতো) ওটমিল ছড়িয়ে দিন। ওটমিল ভেজানো পানি আপনার শরীর দিয়ে যখন প্রবাহিত হবে তখন সেটা ত্বক আর্দ্র করবে।

Check Also

নিয়মিত মাছের ডিম খেলে যেসব উপকার পাবেন

মাছের ডিমে রয়েছে ভিটামিন-এ, যা চোখ ভালো রাখে। তাই প্রতিদিন মাছের ডিম খান। ছবি: সংগৃহীত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *