Breaking News
Home / খেলাধুলা / চলে গেলেন ডোমিঙ্গো-কুক-গিবসন

চলে গেলেন ডোমিঙ্গো-কুক-গিবসন

স্পোর্টস ডেস্ক  :   আসলে তারা এসেছিলেন শ্রীলঙ্কা সফরকে সামনে রেখে। উদ্দেশ্য ছিল, লঙ্কা মিশনের আগে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনা করা। আর তাই গত অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে রাজধানী ঢাকায় পা রাখেন জাতীয় দলের হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক ও পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন।

শ্রীলঙ্কা সফর বাতিল হয়ে গেলেও জাতীয় দলের এই তিন কোচিং স্টাফ টাইগারদের পাশেই ছিলেন। তাদের ব্যক্তিগত ও দলগত প্রশিক্ষণেও রেখেছেন কার্যকর ভূমিকা। হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো কোনো দলের প্রশিক্ষক হিসেবে কাজ না করলেও ওটিস গিবসন আর রায়ান কুক প্রেসিডেন্টস কাপে কোচিং করিয়েছেন।

গত ১১ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া প্রেসিডেন্টস কাপে গিবসন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাহিনীর কোচ আর কুক তামিম বাহিনীর কোচের ভূমিকায় ছিলেন। কিন্তু টুর্নামেন্টের ফাইনালে আর থাকা হচ্ছে না এ তিন ভিনদেশি কোচের।

আজ (শনিবার) ভোরের আকাশে সূর্য ওঠার আগেই বাংলাদেশ ত্যাগ করেছেন ডোমিঙ্গো, গিবসন আর কুক। শুক্রবার দিবাগত রাত ভোর ১টা ৪০ মিনিটে বিমানে নিজ নিজ গন্তব্যের পথে আকাশে উড়েছেন তারা।

বিমানবন্দরে তাদের বিদায়ী সংবর্ধনা জানানো ও বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা সম্পাদনের কাজে নিয়োজিত ওসমান খান শনিবার বিকেলে নিশ্চিত করেছেন, হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন আর ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক গতকাল (শুক্রবার) মধ্য রাত ১টা ৪০ মিনিটে এমিরাটসের ঢাকা দুবাইয়ের ফ্লাইটে চড়ে রাজধানী ত্যাগ করেছেন।

ক্যারিবিয়ান গিবসন গেছেন লন্ডন। আর দুই দক্ষিণ আফ্রিকান ডোমিঙ্গো আর কুকের গন্তব্য নিজ দেশের জোহানেসবার্গ। বিসিবির উচ্চ পর্যায়ের দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে, আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝি হয়তো তিন বিদেশি কোচই আবার ফিরে আসবেন।

ওয়াসিম খান জানিয়েছেন, হেড কোচ ডোমিঙ্গো বলে গেছেন-প্রস্তাবিত টি-টোয়েন্টি আসরের সময় তিনি আবার ঢাকা আসবেন। সব কিছু ঠিক থাকলে তারা প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনাল দেখে যেতে পারতেন। শুক্রবারের ফাইনালটি আবহাওয়া অনুকূলে না থাকায় পিছিয়ে রোববার নেয়া হয়েছে।

Check Also

নেইমারের পেনাল্টি গোলে আশা বাঁচিয়ে রাখল পিএসজি

স্পোর্টস ডেস্ক  :   নিজেদের ঘরের মাঠে মুখোমুখি প্রথম সাক্ষাতের ম্যাচে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইকে (পিএসজি) ২-১ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *