Breaking News
Home / সারা বাংলা / ৯৯৯ নম্বরে কল করে রক্ষা পেলেন অন্তঃসত্ত্বা নারী

৯৯৯ নম্বরে কল করে রক্ষা পেলেন অন্তঃসত্ত্বা নারী

নীলফামারী  প্রতিনিধি :    জাতীয় জরুরি সেবার হটলাইন ৯৯৯ নম্বরে কল করে নির্যাতনের হাত থেকে রক্ষা পেলেন নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ইশিতা আক্তার লিজা (২৩)। যৌতুকের দাবিতে স্বামী ও তার পরিবারের লোকজন মারপিট শুরু করলে ৯৯৯ নম্বরে কল দেন তিনি। এরপর পুলিশ এসে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে তাকে। গতকাল সোমবার (১১ নভেম্বর) রাতে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের শিঙ্গেরগাড়ী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

লিজা জানায়, তিন বছর আগে ওই উপজেলার মাগুড়া ইউনিয়নের সিঙ্গেরগাড়ি গ্রামের বাবুল খানের ছেলে আশিকুর রহমানের (২৮) সঙ্গে বিয়ে হয় তার। বিয়ের পর থেকে স্বামীসহ পরিবারের সদস্যরা চার লাখ টাকা যৌতুকের জন্য তাকে মারপিট ও নির্যাতন করেন। তার স্বামী ক্রিকেট জুয়ায় টাকা হেরে যায়। আরও টাকা আনতে আমাকে বাবার বাড়ি যেতে বলে। এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার রাতে শ্বশুরবাড়ির লোকজন মারপিট শুরু করে তাকে।

জীবন বাঁচাতে পালিয়ে প্রতিবেশীর ঘরে ঢুকে দরজা বন্ধ করে ৯৯৯ নম্বরে কল করে ঘটনা জানান তিনি। এরপর কিশোরগঞ্জ থানার পুলিশ এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়।

লিজা অভিযোগ করে বলেন, এর আগেও কয়েকবার নির্যাতনের শিকার হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। এখন অন্তঃসত্ত্বা হলেও তারা আমাকে রেহাই দেয়নি।

লিজার পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, বিয়ের সময় নগদ দুই লাখ টাকা দেয়া হলেও স্বামীসহ পরিবারের সদস্যরা আরও চার লাখ টাকা যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে আসছে। তাদের সংসারে দুই বছরের একটি ছেলে আছে।

এ ঘটনায় কিশোরগঞ্জ থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুন-অর-রশীদ জানান, ৯৯৯ থেকে ফোন পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করাই। এ ব্যাপারে ভিকটিমের বাবা মশিয়ার রহমান একটি অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Check Also

খাটিয়া জোটেনি, বাঁশ কাটতে দেয়নি গ্রামবাসী, অ্যাম্বুলেন্সে জানাজা

ঝিনাইদহ  প্রতিনিধি :   করোনাভাইরাসে মৃত ব্যক্তির মরদেহ খাটিয়ায় তুলতে দেয়া হয়নি; এমনকি বাঁশ-খুঁটিও কাটতে দেয়নি এলাকাবাসী। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *