Home / আর্ন্তজাতিক / মমতা : পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে না, কিন্তু…

মমতা : পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে না, কিন্তু…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  ভারতে জাতীয় নাগরিক পঞ্জিকে (এনআরসি) রাজনৈতিক হাতিয়ার করা হচ্ছে। অপপ্রচারে কান দেবেন না। আমি থাকতে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হবে না। রাজধানী থেকে ফিরে রাজ্যবাসীকে আশ্বস্ত করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ভোটার তালিকায় নামটা তুলে রাখার অনুরোধ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যে ভোটার তালিকা সংশোধন ও ডিজিটাল রেশন কার্ড নিয়ে এনআরসি গুজব ছড়াচ্ছে। আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই জানিয়ে মমতা বললেন, ‘কিছু অপপ্রচার চলছে। বাংলায় এনআরসি নিয়ে দিল্লিতে কথা হয়নি। রাজনৈতিক কারণে বাংলায় এনআরসি নিয়ে ভয় দেখাচ্ছে। উস্কানিমূলক কথা বলছে।’

রাজ্যবাসীকে আশ্বাস দিয়ে মমতা বলেন, ‘বাংলার মানুষকে বলবো, এখানে কোনো এনআরসি হবে না। আমাকে বিশ্বাস করেন তো। এনআরসি নিয়ে রাজনৈতিক প্রচার করছে। এটা রাজনীতির হাতিয়ার। বাংলায় প্রশ্নই আসে না। হবে না হবে না হবে না।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভয় পেয়ে লাইনে দাঁড়ানো। ভয় পেয়ে শরীর খারাপ করা। চিন্তা করার কোনও কারণ নেই। ভোটার তালিকায় নাম রয়েছে। নিজের নামে জমি-বাড়ি আছে, আবার কী চাই? ভোট দেয়া মানে নাগরিক, এটাই তো আপনার সম্বল।’

নাগরিকত্ব হারাবে না কেউ এমন আশ্বাস দিয়ে মুখমন্ত্রী জানালেন, ‘এটা ডিজিটাল রেশন কার্ড। এটা সুযোগ দেয়া হচ্ছে। এর সঙ্গে এনআরসির কোনো সম্পর্ক নেই। চিন্তার কারণ নেই। আপনাদের কারও গায়ে হাত দিতে গেলে মমতার গায়ে হাত দিতে হবে। আপনাদের পাহারাদার ছিলাম, থাকব।’

তবে ভোটার তালিকায় নাম তোলার জন্য অনুরোধ করেছেন মমতা বন্দোপাধ্যায়। তিনি তার রাজ্যবাসীর উদ্দেশে বলেছেন, ‘একটু চেক (পরীক্ষা) করে নিন। ভোটার লিস্টে (তালিকায়) নামটা তুলে রাখবেন। তাহলে আর কোনো ভয় নেই আপনাদের।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে বৈঠকে বাংলায় এনআরসি নিয়ে কোনও কথা হয়নি বলে আরও একবার জানিয়েছেন মমতা। তার কথায়, ‘আসামে এনআরসির জন্য কত মানুষ মারা গেছে। এনআরসি নিয়ে কথা বলতেই তো দিল্লি গেলাম। বিষয়টি দেখে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়। তাই বলে এলাম দিল্লি গিয়ে।’

Check Also

জিনপিংকে রেশমি সুতায় বোনা প্রতিকৃতি উপহার দিলেন মোদি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে অভিনব উপহার দিলের ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। জিনপিংয়ের ভারত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *