Tuesday , October 15 2019
Breaking News
Home / অর্থনীতি / ডিএসইর ব্লকে লেনদেন বেড়ে দ্বিগুণ

ডিএসইর ব্লকে লেনদেন বেড়ে দ্বিগুণ

অর্থনীতি ডেস্ক :   আগের সপ্তাহের তুলনায় গত সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে লেনদেনের পরিমাণ বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। তবে ব্লকের লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে। আগের সপ্তাহের তুলনায় গত সপ্তাহে ব্লকে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে তিনটি। বিপরীতে লেনদেন বেড়েছে ৪৫ কোটি ২৭ লাখ ৩৪ হাজার টাকা।

গত সপ্তাহে ২৯টি প্রতিষ্ঠান ডিএসইর ব্লক মার্কেটের লেনদেনে অংশ নেয়। এ প্রতিষ্ঠানগুলোর ২ কোটি ২৬ লাখ ৭ হাজার ৭১৪টি শেয়ার ৮৫ কোটি ৪৬ লাখ ৫৫ হাজার টাকা লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে ডিএসইর ব্লকে ৩২ কোম্পানির ১ কোটি ৫৫ লাখ ৪৪ হাজার ৪৯টি শেয়ার ৪০ কোটি ১৯ লাখ ২১ হাজার টাকায় লেনদেন হয়।

গত সপ্তাহে ব্লকে লেনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে- ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স, ব্র্যাক ব্যাংক, যমুনা ব্যাংক, গ্রীণ ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ব্যাংক এশিয়া, নাভানা সিএনজি, উত্তরা ব্যাংক, গ্লাক্সোস্মিথক্লাইন, ওরিয়ন ইনফিউশন, ইসলামী ব্যাংক, ডাচ্- বাংলা ব্যাংক, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল, ফরচুন সুজ, অ্যাডভেন্ট ফার্মা, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ম্যারিকো বাংলাদেশ, প্রাইম ব্যাংক, সিঙ্গার বিডি, প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স, লিগ্যাসি ফুটওয়্যার, ন্যাশনাল টিউবস, সিনো বাংলা, ভিএফএস থ্রেড ডাইং, জেনেক্স ইনফোসিস, খান ব্রাদার্স পিপি, এসকে ট্রিমস, সিমটেক্স এবং ইন্ট্রাকো রিফুয়েলিং।

প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে গত সপ্তাহে ব্লকে সবচেয়ে বেশি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের। কোম্পানিটির ৩৪ কোটি ৭০ লাখ ৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্র্যাক ব্যাংকের ৯ কোটি ৯৫ লাখ ৮৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৫ কোটি ৫৪ লাখ ৪০ হাজার টাকার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে যমুনা ব্যাংক।

এছাড়া গ্রীণ ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৫ কোটি ৪৫ লাখ ১১ হাজার টাকা, ব্যাংক এশিয়ার ৪ কোটি ৬২ লাখ ৯০ হাজার টাকা, নাভানা সিএনজির ৩ কোটি ৪৯ লাখ ৩০ হাজার টাকা, উত্তরা ব্যাংকের ৩ কোটি ৩৪ লাখ ৪০ হাজার টাকা, গ্লাক্সোস্মিথক্লাইনের ২ কোটি ৮৮ লাখ ৭৬ হাজার টাকা, ওরিয়ন ইনফিউশনের ২ কোটি ৬৮ লাখ ৫৩ হাজার টাকা, ইসলামী ব্যাংকের ২ কোটি ৩৫ লাখ টাকা, ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের ২ কোটি ১ লাখ ৩৪ হাজার টাকা, স্কয়ার ফার্মার ১ কোটি ৫৪ লাখ ৩৮ হাজার টাকা এবং ফরচুন সুজের ১ কোটি ৫৩ লাখ ২২ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

বাকি প্রতিষ্ঠানগুলোর এককভাবে এক কোটি টাকার কম লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে- অ্যাডভেন্ট ফার্মার ৯৯ লাখ টাকা, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৮৩ লাখ টাকা, ম্যারিকো বাংলাদেশের ৬৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা, প্রাইম ব্যাংকের ৬৭ লাখ ৩২ হাজার টাকা, সিঙ্গার বিডির ৫১ লাখ ১৮ হাজার টাকা, প্রগতি লাইফের ৩১ লাখ ৫০ হাজার টাকা, লিগ্যাসি ফুটওয়্যারের ২৯ লাখ ৪৬ হাজার টাকা, ন্যাশনাল টিউবসের ১২ লাখ টাকা, সিনো বাংলার ১১ লাখ ৪৭ হাজার টাকা, ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ৬ লাখ ৫৮ হাজার টাকা, জেনেক্স ইনফোসিসের ৬ লাখ ৩৭ হাজার টাকা, খান ব্রাদার্সের ৬ লাখ ১০ হাজার টাকা, এসকে ট্রিমসের ৫ লাখ ৮৯ হাজার টাকা, সিমটেক্সের ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা এবং ইন্ট্রাকোর ৫ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে।

Check Also

বন্যার্তদের চিকিৎসা সহায়তায় ইউসিবির ২০ লাখ টাকা অনুদান

অর্থনীতি ডেস্ক :   ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক (ইউসিবি) লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান আনিসুজ্জামান চৌধুরী গত ১৩ অক্টোবর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *