Home / সারা বাংলা / ‘হাসান বিয়ে না করলে এখানেই আত্মহত্যা করব’

‘হাসান বিয়ে না করলে এখানেই আত্মহত্যা করব’

পাবনা   প্রতিনিধি :    পাবনার সাঁথিয়ায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে আমরণ অনশন করছেন এক কলেজছাত্রী। তার প্রেমিক হাসান উপজেলার নাগডেমড়া ইউনিয়নের সোনাতলা নতুনপাড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। ওই কলেজছাত্রীর বাড়ি শাহজাদপুর উপজেলার গঙ্গাপ্রসাদ গ্রামে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে রোজিনা প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান নিয়েছে। তিনি সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। প্রেমিক হাসান বিয়ে না করলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন ওই কলেজছাত্রী। আর প্রেমিকা আসার খবর পেয়ে প্রেমিক হাসান বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছেন।

ওই কলেজছাত্রীর অভিযোগ, প্রায় তিন বছর আগে হাসানের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক হয়। প্রায় দেড় বছর ধরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে হাসান তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে আসছে।

ওই কলেজছাত্রীর বাবা বলেন, এসব বিষয় জানাজানি হওয়ার পর আমাদের পক্ষ থেকে হাসানের বাড়ি বিয়ের প্রস্তাব পাঠানো হয়। এতে হাসানের বাবা-মা সম্পর্ক মেনে না নিয়ে তাদের ফিরিয়ে দেন। এদিকে হাসানও পরিবারের দোহাই দিয়ে বিয়ে করতে অসম্মতি জানিয়েছে।

ওই কলেজছাত্রী বলেন, কোনো উপায় না পেয়ে হাসানের বাড়িতে এসে আমরণ অনশনে বসেছি। আমি এখান থেকে যাব না। হাসান বিয়ে না করলে এখানেই আত্মহত্যা করব।

এ বিষয়ে প্রেমিকের বাড়ির লোকজন জানান, হাসান ওই মেয়ের সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেছে। তাই মেয়ে পক্ষকে ফিরিয়ে দেয়া হয়।

ওই কলেজছাত্রীর নানা বলেন, বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে আমরা ছেলের বাড়িতে গেলে তারা জানায় ছেলের সঙ্গে মেয়ের কোনো সম্পর্ক নেই। এ কথা বলে আমাদের ফিরিয়ে দেয়। তাই আমার নাতনি বিয়ের দাবিতে ছেলের বাড়িতে গিয়ে উঠতে বাধ্য হয়েছে।

এ ব্যাপারে নাগডেমড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ জানান, আমি বিষয়টি শুনেছি। বিষয়টি নিয়ে ওই বাড়িতে লোক পাঠানো হয়েছে এবং পুলিশে খবর দেয়া হয়েছে।

সাঁথিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, বিষয়টি শুনেছি। মেয়েটির বাবা-মাকে মোবাইল ফোন করে ডাকলেও তারা আসেননি। মেয়েটি তার কথায় অনড়। আমরা বিষয়টি সমাধানের জন্য চেষ্টা করছি।

Check Also

মেহগনি বাগানে এনজিও কর্মকর্তার লাশ

চুয়াডাঙ্গা  প্রতিনিধি :   চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার মুন্সীপুর সীমান্ত এলাকা থেকে সাইফুল ইসলাম (৪০) নামে এক এনজিও …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *