Saturday , January 25 2020
Home / জাতীয় / প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর মশা নিধন সপ্তাহের আয়োজন

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর মশা নিধন সপ্তাহের আয়োজন

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :    ডেঙ্গুর উপদ্রবের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পর ২৫-৩১ জুলাই মশক নিধন সপ্তাহের আয়োজন করছে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে দেশব্যাপী ‘মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা সপ্তাহ-২০১৯’ পালনের প্রস্তুতিমূলক সভা থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

সভায় স্থানীয় সরকারমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ‘বাংলাদেশে ডেঙ্গুতে তিন হাজারের বেশি লোকের আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেছে। এশিয়ার অন্যান্য দেশে মৃত্যুবরণের তথ্য আছে, বাংলাদেশেও দুঃখজনক এই রকম কিছু ঘটনা ঘটেছে। এগুলো আমাদের কাছে অত্যন্ত পীড়াদায়ক বলে মনে হয়। এজন্য স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে বিভিন্ন ধরনের সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘সিটি কর্পোরেশ, পৌরসভা, ইউনিয়ন পরিষদ তাদের উপর নির্দেশিত কর্মসূচি তারা পালন করছেন। স্বেচ্ছাধীন কিছু কর্মসূচিও তারা গ্রহণ করেছেন। মশা নিধনের অভিযান অব্যাহত আছে। এরপরও আমরা কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারিনি। এজন্য সারা বাংলাদেশে একযোগে মশা নিধনের জন্য আমাদের কাছে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে একটি নির্দেশনা এরই মধ্যে এসেছে।’

‘প্রধানমন্ত্রীকে আমি আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাই যে, তিনি এত ইনোভেটিভ একটা চিন্তা করেছেন। মশাকে বৈশ্বিক সমস্যা চিহ্নিত করা হয়েছে। বাংলাদেশেও এক অঞ্চলে না সব অঞ্চলে মশার প্রাদুর্ভাব আছে। ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু মশার আক্রমণের তথ্য তেমন ব্যাপকভাবে নেই। ঢাকা ও চট্টগ্রাম আছে।’

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘সিঙ্গেল স্ট্রোক অ্যাপ্রোচের মাধ্যমে এই সমস্যার সমাধান করা যাবে না। কোন সমস্যারই সমাধান হবে না। সমাধানের জন্য আমাদের মাল্টিপল অ্যাফোর্ড অ্যান্ড ক্রসসেকশনাল ভূমিকা রাখতে হবে, তাহলে সম্ভব।’

এবার ডেঙ্গুবাহী এডিস মশার উপদ্রব উদ্বেগজনকহারে বেড়ে গেছে। প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক মানুষ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হচ্ছেন। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত ১১ জন মারা গেছেন বলে সংবাদ মাধ্যমে খবর বেরিয়েছে। কিন্তু মশার উপদ্রব রোধে কোন কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পারেনি স্থানীয় সরকার বিভাগ তথা ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জানা গেছে, ২৫-৩১ জুলাই পর্যন্ত মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা সপ্তাহের স্লোগান নির্ধারণ করা হয়েছে- ‘নিজ আঙ্গিনা পরিষ্কার রাখি, সবাই মিলে সুস্থ থাকি।’

এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে স্থানীয় সরকার মন্ত্রীকে সভাপতি করে ২১ সদস্যের জাতীয় সমন্বয় কমিটি, মেয়রের নেতৃত্বে সিটি কর্পোরেশন কমিটি, জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে জেলা কমিটি, পৌরসভা মেয়রের নেতৃত্বে পৌরসভা কমিটি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে উপজেলা কমিটি এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ইউনিয়ন কমিটি গঠন করা হবে।

সপ্তাহ পালনের নির্দেশনা সম্বলিত একটি পরিপত্র জারি করা হবে বলেও স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে জানা গেছে।

সভায় স্থানীয় সরকার সচিব হেলালুদ্দীন আহমদসহ অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Check Also

আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :     আওয়ামী লীগের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *