Home / বিশেষ প্রতিবেদন / নাভিশ্বাস শহরে শিগগিরই মিলছে স্বস্তির পার্ক

নাভিশ্বাস শহরে শিগগিরই মিলছে স্বস্তির পার্ক

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :    মেগাসিটি ঢাকার জনসংখ্যা দুই কোটি ছুঁই ছুঁই। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এ শহরে জনসংখ্যা এবং আকাশচুম্বী ভবন যেমন বাড়ছে তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কমছে সবুজের সমাহার। রাজধানী শহর ঢাকায় রয়েছে নানামাত্রিক নাগরিক দুর্ভোগ। দিন দিন এখানে নানা কারণে কমছে সবুজায়ন। ফলে একদিকে পরিবেশের ভারসাম্য যেমন হারাচ্ছে, অন্যদিকে পর্যাপ্ত অক্সিজেন থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন নগরবাসী।

ক্রমাগত সবুজের চিহ্ন হারানো এ শহরবাসীর মনে আশা জাগিয়েছে ‘জল-সবুজ ঢাকা’ প্রকল্প। রাজধানীবাসীর প্রত্যাশিত এসব পার্ক-মাঠের মধ্যে বেশ কয়টি এখন উন্মুক্ত হওয়ার অপেক্ষায়।

ডিএসসিসি গৃহীত এই ‘জল-সবুজে ঢাকা’ প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি পার্ক-খেলার মাঠের উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। যেকোনো সময়ে ওই সব পার্ক-খেলার মাঠ নগরবাসীর জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হবে।

নাগরিক জীবনের একঘেয়ামিতা কাটাতে পার্ক ও খেলার মাঠে থাকছে ফুলের বাগান, বিনোদন রাইড, ওয়াকওয়ে, ব্যায়ামাগার, কফি শপসহ নানাবিধ সুবিধা।

ডিএসসিসির পার্ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় নগরীর ১৯টি পার্কের মধ্যে গুলিস্তান পার্ক ও খেলার মাঠ, শহীদ বুদ্ধিজীবী আবদুল খালেক সরদার পার্ক, সিরাজ-উদ-দৌলা পার্ক, শহীদ আবদুল আলিম পার্ক ও খেলার মাঠ, টিকাটুলি পার্ক ও খেলার মাঠ, হাজারীবাগ পার্ক, নবাবগঞ্জ পার্ক, রসুলবাগ শিশুপার্কের নির্মাণ ও উন্নয়ন কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে।

খেলার মাঠ ও পার্কগুলোর মধ্যে রসুলবাগ, জোড়াপুকুর খেলার মাঠের উন্নয়ন কাজও শেষের দিকে। অন্যদিকে নির্মাণ ও সাজ-সজ্জাকরণের কাজ চলছে আউটফল, বংশালসহ নগরীর বেশ কয়েকটি পার্ক ও খেলার মাঠের।

সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এসব পার্ক ও খেলার মাঠের উন্নয়ন কার্যক্রম সম্পন্ন হলে নগরবাসী পাবেন দৃষ্টিনন্দন পার্ক ও খেলার মাঠ। এগুলো দেখতে আন্তর্জাতিক মানের হবে, ফলে পাল্টে যাবে নগরীর সার্বিক দৃশ্য।

একসময় নগরীর পার্ক ও খেলার মাঠগুলো বেদখল হয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের আখড়ায় পরিণত হয়েছিল। এগুলো দখলমুক্ত করে আধুনিক ও উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে নাগরিকদের সুষ্ঠু চিত্তবিনোদনের জন্য ‘জল-সবুজে ঢাকা’ শীর্ষক প্রকল্প গ্রহণ করা হয়। এ প্রকল্পে ১৩টি স্থাপত্য প্রতিষ্ঠানের শতাধিক অভিজ্ঞ স্থপতিকে সম্পৃক্ত করা হয়।

‘জল-সবুজে ঢাকা’ প্রকল্পের পরিচালক এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান বলেন, ‘এ প্রকল্পের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। কাজ শেষ হলে নগরবাসী দৃষ্টিনন্দন পার্ক পাবেন আর শিশু-কিশোররা পাবে খেলার মাঠ।’

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ সিরাজুল ইসলাম বলেন, নগরবাসীর জন্য আমরা পার্ক ও খেলার মাঠ নির্মাণের কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিচ্ছি। পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ সম্পন্ন হলে এসব পার্ক, খেলার মাঠের দৃশ্য পুরোপুরি বদলে গিয়ে দৃষ্টিনন্দন রূপ লাভ করবে।

Check Also

গুজবের পেছনে জামায়াত সম্পৃক্ততার সন্দেহ

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :   পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে বলে যে ‘গুজব’ ছড়ানো হয়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *