Home / অর্থনীতি / ফ্রি পাখা-ক্যাপ দিয়ে আইএফআইসির ‘বিজ্ঞাপন’

ফ্রি পাখা-ক্যাপ দিয়ে আইএফআইসির ‘বিজ্ঞাপন’

অর্থনীতি ডেস্ক :   পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ঘুরতে বের হওয়া রাজধানীবাসীর মধ্যে ফ্রি হাত পাখা ও পেপার ক্যাপ বিতরণ করছে বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক আইএফআইসি। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি তাদের হোমলোনসহ সেবা-সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন প্রচার করছে।

রোববার সকালে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও শিল্পকলা একাডেমির মাঝের রাস্তায় বুথ দিয়ে উৎসবপ্রিয় মানুষের মধ্যে হাতপাখা ও পেপার ক্যাপ বিতরণ করতে দেখা যায় আইএফআইসির। ব্যাংকটির ফ্রি বিতরণ করা পাখা ও ক্যাপে লেখা রয়েছে- ‘প্রগতির পথে চলি একসাথে, কালের ঢাকাতে’। একই স্লোগান দেখা যায় পাখা ও ক্যাপ বিতরণে নিয়োজিতদের গায়ের টি-শাটে।

কথা হয় পাখা ও ক্যাপ বিতরণের দায়িত্ব পালন করা শুভোর সঙ্গে। তিনি বলেন, আমরা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্বে রয়েছি। এখন বেশ গরম পড়ছে। বাইরে বের হয়ে একটু হাঁটাহাঁটি করলেই গা দিয়ে ঘাম ঝরে পড়ছে। এ জন্যই ফ্রি পাখা বিতরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সঙ্গে শিশুদের সাজগোজের সৌন্দর্য বাড়ানোর জন্য ফ্রি ক্যাপ দেয়া হচ্ছে। মূলত বিজ্ঞাপনের জন্যই ব্যাংক এ উদ্যোগ নিয়েছে।

আইএফআইসির বুথ থেকে পাখা ও ক্যাপ সংগ্রহ করা রাইফা নামের একজন বলেন, ‘ঘুরতে ঘুরতে এখানে ফ্রি পাখা ও ক্যাপ বিতরণ করার দৃশ্য দেখতে পাই। এখন তো বেশ গরম পড়ছে, তাই আমরাও দুটি পাখা ও একটি ক্যাপ নিলাম।’

তিনি বলেন, ‘প্রতি বছরই পহেলা বৈশাখের দিন কোনো না কোনো কোম্পানি এভাবে ফ্রি হাতপাখা ও ক্যাপ বিতরণ করে। কিন্তু এর আগে কোনো ব্যাংক কোম্পানিকে আমি এভাবে পাখা, ক্যাপ বিতরণ করতে দেখিনি।’

ব্যাংকটির বিতরণ করা ব্রুশিয়ারে হোমলোনের বিষয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, নতুন বা পুরনো অ্যাপার্টমেন্ট, ফ্ল্যাট, রেডিমেড বাড়ি, নিজ বাড়ি নির্মাণ অথবা বর্তমান ফ্ল্যাট, বাড়ি সংস্কার বা পরিবর্ধনে আইএফআইসি হোমলোন দিচ্ছে।

সবচেয়ে কম সময়ে সবচেয়ে কম খরচে লোন পাওয়ার সুবিধার কথা বলছে ব্যাংকটি। লোনের পরিমাণ ৫ লাখ থেকে ১ কোটি ২০ লাখ টাকা। লোনের মেয়াদ সর্বোচ্চ ২৫ বছর। দেশের যে কোনো এলাকা থেকেই সেমিপাকা বাড়ি নির্মাণে লোন দেয়া হয়। নির্দিষ্ট সময়ের আগে লোন পরিশোধের কোনো ফি অথবা বিধি-নিষেধ নেই। এ ধরনের আরও কয়েকটি সুবিধার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

ব্রুশিয়ারে বিশেষ ধরনের ব্যাংক হিসাবের কথা উল্লেখ করেছে আইএফআইসি। ‘আমার অ্যাকাউন্ট’ নামের এই ব্যাংক হিসাবটির বিষয়ে বলা হয়েছে, এই অ্যাকাউন্ট সঞ্চয় ও লোনের সুবিধা-সম্বলিত একটি অনন্য অ্যাকাউন্ট। এই অ্যাকাউন্টে এমন সব আকর্ষণীয় সুবিধা রয়েছে, যা একাধিক অ্যাকাউন্ট পরিচালনার খরচ ও ঝামেলা থেকে মুক্ত রাখবে। বাংলাদেশে আইএফআইসি ব্যাংকই প্রথম এই সুবিধা নিয়ে এসেছে বলছে আইএফআইসি।

অ্যাকাউন্টটির সুবিধার বিষয়ে বলা হয়েছে, ফিক্সড ডিপোটিজের মতো আকর্ষণীয় মুনাফার হার, মুনাফা দৈনিক হিসাব করে মাসিক ভিত্তিতে অ্যাকাউন্টে প্রদান, কারেন্ট অ্যাকাউন্টের মতো লেনদেনের সুবিধা, সর্বোচ্চ ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত তাৎক্ষণিক লোন প্রাপ্তির সুবিধা, যে কোনো ক্রেডিট কার্ডের চেয়ে অর্ধেক সুদে (১৪%) লোন পাওয়া, ভিসা ডেবিট কার্ডের সুবিধা, যতটুকু লোন শুধু ততটুকুর জন্যই সুদ প্রযোজ্য, কোনো হিসাবে চার্জ নেই ইত্যাদি।

Check Also

আবারও মতিঝিলের রাস্তায় বিনিয়োগকারীরা

অর্থনীতি ডেস্ক :   দেশের শেয়ারবাজারে অব্যাহত বড় দরপতন পিছু ছাড়ছে না। টানা পতনে একটু একটু করে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *