Home / রাজনীতি / নির্বাচন নিয়ে সংলাপের যৌক্তিকতা নেই : সেতুমন্ত্রী

নির্বাচন নিয়ে সংলাপের যৌক্তিকতা নেই : সেতুমন্ত্রী

ঢাকার ডাক ডেস্ক   :    নির্বাচন নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সংলাপের দাবিকে নাকচ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক, যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এই মুহূর্তে এর কোনো প্রয়োজন বা যৌক্তিকতা নেই।

শনিবার রাজধানীর মানিক মিয়া অ্যাভিনিউতে বিআরটিএ’র ভ্রাম্যমাণ আদালতের (মোবাইল কোর্ট) কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে তিনি বলেন, ‘যেখানে ভোট নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই, বিতর্ক নেই, গণতান্ত্রিক বিশ্ব উল্টো সমর্থন দিয়েছে, সেখানে এ ধরনের সংলাপের কোনো যৌক্তিকতা কিংবা বাস্তবতা বা প্রয়োজনীয়তা এ মুহূর্তে নেই।’

‘নির্বাচন নিয়ে সংলাপের দাবি একেবারেই হাস্যকর। আমি বলব মামা বাড়ির আবদার, এ ছাড়া আর কিছু নয়।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এবারই প্রথম সরকার গঠনের আগে গণতান্ত্রিক দেশগুলোর সমর্থন এবং শুভেচ্ছা আমাদের প্রধানমন্ত্রীর পেয়েছেন। উন্নত দেশগুলো সরকার গঠনের আগেই কিন্তু অভিনন্দন জানিয়েছে। কাজেই এ ধরনের দাবি অবান্তর, কোনো যৌক্তিকতা নেই।’

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে দেশে-বিদেশে কোনো প্রকার বিতর্ক নেই। আন্তর্জাতিক বিশ্ব থেকে কোনো প্রশ্ন আমরা এখন পর্যন্ত পাইনি। কাজেই নির্বাচন নিয়ে যারা আজকে অভিযোগ তোলেন, তারা নির্বাচনে হেরে গেছেন বলেই হেরে যাওয়ার বেদনা থেকেই এসব প্রশ্ন, এসব অভিযোগ তুলছেন।’

‘এটার কোনো বাস্তবতা নেই। দেশে-বিদেশে এর কোনো স্বীকৃতি নেই, জনগণ খুব খুশি। চারিদিকে আপনারা জনগণের মতামত নিতে পারেন, জনগণ এই নির্বাচনে স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিয়েছে। জনগণের কোনো প্রশ্ন নেই, প্রশ্ন আছে শুধু বিরোধী রাজনৈতিক দলের। তাদের কাছে প্রশ্ন থাকবেই। বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের চাঙা রাখতে হলে গরম কথা বলতে হবে,’ বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

বিআরটিএ’র অভিযান প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মাঝখানে নির্বাচন থাকায় বিআরটিএর অভিযান স্থগিত ছিল। যে কারণে অনিয়ম বেড়ে গেছে। আজকে ২ ঘণ্টার মধ্যেই ৯৮ হাজার টাকা জরিমানা ৮টি গাড়ি জব্দ এবং তিনজনের জেল ও ৪২টি মামলা করা হয়েছে। এই অভিযান নিয়মিত চলবে।’

বিআরটিএ’কে অভিযান আরো জোরদার করতে বলা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সংখ্যা বেড়েছে,  ১০ জন ম্যাজিস্ট্রেট যুক্ত হয়েছে। যার কারণে লাইসেন্সবিহীন গাড়ি, ফিটনেসবিহীন গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আগের চেয়ে আরও বেশি সক্রিয় হয়েছে।’

পথচারী এবং গাড়ি চালকদের আরো সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সামগ্রিকভাবে আমাদের মানসিকতা পরিবর্তন জরুরি। রাস্তা পারাপারের ট্রাফিক আইন কানুন কিছুই কেউ মানতে চায় না। আমাদের পাবলিক রাস্তায় বেপরোয়া ড্রাইভারের মতো মাঝেমধ্যে বেপরোয়া হয়ে যায়। শুধু যে চালকের জন্য দুর্ঘটনা হয় তা নয়, যাত্রীর জন্যও হয়, পথচারীর জন্য এক্সিডেন্ট হয়। কাজে এসব বিষয়গুলো সাংবাদিকদেরও ক্যাম্পেইনে আনা উচিত।’

দলের সম্মেলনের বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কাউন্সিল আগে কীভাবে হবে? কাউন্সিল অক্টোবর মাসেই হবে।’

Check Also

মাঠে বসেই ছেলের কৃতিত্ব দেখলেন সাকিবের বাবা-মা

স্পোর্টস ডেস্ক :    এমন গর্বিত বাবা-মা আর ক’জনের হতে পারে। স্নায়ুর উত্তেজনায় ভুগতে পারেন না …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *