Wednesday , January 23 2019
Home / ফটো গ্যালারি / চালু হচ্ছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সেতু

চালু হচ্ছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সেতু

বুধবার খুলে যাচ্ছে দুনিয়র দীর্ঘতম সেতু হংকং-ঝুহাই-ম্যাকাও ব্রিজ। এটি হংকংয়ের সঙ্গে জুড়ে দেবে চীনের মূল ভূখণ্ডকে। তিন ঘণ্টার রাস্তা পাড়ি দেওয়া যাবে মাত্র ৩০ মিনিটে।

বুধবার খুলে যাচ্ছে দুনিয়র দীর্ঘতম সেতু হংকং-ঝুহাই-ম্যাকাও ব্রিজ। এটি হংকংয়ের সঙ্গে জুড়ে দেবে চীনের মূল ভূখণ্ডকে। তিন ঘণ্টার রাস্তা পাড়ি দেওয়া যাবে মাত্র ৩০ মিনিটে।

৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুটি জুড়ে দেবে চীনের ঝুহাই ও হংকং ও ম্যাকাওকে। ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে সেতুটি তৈরির কাজ শুরু হয়।

৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতুটি জুড়ে দেবে চীনের ঝুহাই ও হংকং ও ম্যাকাওকে। ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে সেতুটি তৈরির কাজ শুরু হয়।

সেতুটি সমুদ্রের মধ্যে রয়েছে ২২.৯ কিলোমিটার। সমুদ্রের নিচে রয়েছে ৬.৭ কিলোমিটার টানেল। সেতুটির বাকি অংশ মাটির ওপরে।

সেতুটি সমুদ্রের মধ্যে রয়েছে ২২.৯ কিলোমিটার। সমুদ্রের নিচে রয়েছে ৬.৭ কিলোমিটার টানেল। সেতুটির বাকি অংশ মাটির ওপরে।

সমুদ্রের মধ্যে সেতুটির যে অংশ রয়েছে তা খাড়া করা হয়েছে ৩৩টি ফাঁকা ব্লকের সাহায্যে। এর এক একটির ওজন ৮০,০০০ টন।

সমুদ্রের মধ্যে সেতুটির যে অংশ রয়েছে তা খাড়া করা হয়েছে ৩৩টি ফাঁকা ব্লকের সাহায্যে। এর এক একটির ওজন ৮০,০০০ টন।

সেতুটি তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪০০০০০ টন ইস্পাত। রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্পতেও এটির কোনো ক্ষতি হবে না। বড় কোনো পণ্যবাহী জাহাজ ধাক্কা দিলেও কিছু হবে না।

সেতুটি তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়েছে ৪০০০০০ টন ইস্পাত। রিখটার স্কেলে ৮ মাত্রার ভূমিকম্পতেও এটির কোনো ক্ষতি হবে না। বড় কোনো পণ্যবাহী জাহাজ ধাক্কা দিলেও কিছু হবে না।

সেতুটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ৯ বছর। খরচ হয়েছে ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

সেতুটি তৈরি করতে সময় লেগেছে ৯ বছর। খরচ হয়েছে ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

Check Also

সপ্তাহের শুরুতেই সব টাকা শেষ হলে পুরো মাস চালাবেন যেভাবে

যাদের সঙ্গে বেরোনো মানেই দামি রেস্তোরাঁয় খাওয়া বা ক্লাবে গিয়ে পার্টি করা, এই সময়ে তাদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *