Tuesday , October 16 2018
Home / ক্যাম্পাস / শাটলের বগি বৃদ্ধির দাবিতে উত্তাল চবি

শাটলের বগি বৃদ্ধির দাবিতে উত্তাল চবি

ক্যাম্পাস প্রতিনিধি  :  শাটল ট্রেনে বগি বৃদ্ধি ও সংস্কারের দাবিতে উত্তাল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)। একই দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের একত্মতা ঘোষণা করে মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ও প্রগতিশীল ছাত্রজোট।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। রবিউল আলম নামে এক শিক্ষার্থী বুধবার ট্রেনে কাটা পড়ে দুই পা বিচ্ছিন্ন হওয়ায় এই ইস্যুতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা।

বক্তারা নিরাপদ শাটলের দাবি জানিয়ে বলেন, শাটলের বগি বৃদ্ধি ও সংস্কারের দাবি দীর্ঘদিনের। কিন্তু রেলওয়ে ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিষয়টি তেমন গুরুত্ব দেয়নি। এই গুরুত্বহীনতার ফলে শাটল আজ মালবাহী ট্রেনে পরিণত হয়েছে।

দুই পা কাটা পড়ে চিকিৎসাধীন থাকা রবিউলের সহপাঠীরাও এতে অংশ নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন৷ জাকারিয়া হোসেন নামে তার এক সহপাঠী বলেন, শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত মাঠে থাকবো। রবিউলের চিকিৎসার ব্যয়ভার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে নিতে হবে। পাশাপাশি তাকে চাকরিও প্রদান করতে হবে।

শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক আন্দোলনে ছাত্রলীগ পাশে থাকবে জানিয়ে ছাত্রলীগের নেতারা বলেন, ৩০০ কোটি টাকার উন্নয়নের দাবি নিয়ে আসেনি। নিরাপদ শাটল নিশ্চিত করার পাশাপাশি প্রতিটি ট্রেনে ১২টি বগি দিতে হবে। এছাড়া পুরনো বগিগুলোও সংস্কার করতে হবে। এসময় রবিউলকে পুনর্বাসনের দাবিও জানান তারা।

CU-Pic

চবি ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী সুজনের সঞ্চালনায় সাবেক সহ-সভাপতি সৌমেন দাশ জুয়েল, যুগ্ম সম্পাদক আবু তোরাব পরশ, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক, উপ-গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু, উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক ইমাম উদ্দিন ফয়সাল পারভেজ, উপ-বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি সম্পাদক রকিবুল হাসান দিনার ও ছাত্রলীগ নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী দুর্জয় প্রমুখ বক্তব্য রাখেন৷

এদিকে মানববন্ধন ও সমাবেশ শেষে সাধারণ শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে উপাচার্য কার্যালয়ে যায়। তবে মিছিলটি আই.টি ভবনের সামনে এলে হঠাৎ করে হট্টগোল বাঁধে। মিছিলে সামনে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করেই এই ঘটনার সূত্রপাত বলে জানা যায়। এ নিয়ে দুই দফা কথা কাটাকাটি হয়। তবে সিনিয়র নেতাদের হস্তক্ষেপে এর সুরাহা হয়। পরবর্তীতে ছাত্রলীগের নেতারা উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরীর কাছে মৌখিকভাবে দাবিগুলো জানায়। এস ময় উপাচার্য তাদের দাবিগুলো দ্রুত সমাধানের আস দেন।

Check Also

বাকৃবিতে আবেদনের শেষ দিন ১৫ অক্টোবর

ক্যাম্পাস প্রতিনিধি  :   আগামী সোমবার (১৫ অক্টোবর) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বাকৃবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *