Thursday , August 16 2018
Home / ফটো গ্যালারি / কবিগুরুর দুর্লভ এই ছবিগুলো দেখেছেন আগে?

কবিগুরুর দুর্লভ এই ছবিগুলো দেখেছেন আগে?

বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের অনন্য সাধকপুরুষ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। কবিতা-গান-ছোটগল্প-উপন্যাসসহ সাহিত্যের সব শাখাতেই তিনি অবাধে বিচরণ করেছেন। চিত্রকলা ও বিভিন্ন দেশ হিতৈষণামূলক কর্মকাণ্ডে যুক্ত ছিলেন তিনি। বাংলাভাষা ও সাহিত্যকে তিনি মহিমান্বিত করেছেন, গৌরবের শীর্ষদেশে পৌঁছে দিয়েছেন।

রবীন্দ্রনাথের পরলোকগমনের মধ্য দিয়ে বাংলাভাষা ও সাহিত্যের সবচেয়ে প্রদীপ্ত নক্ষত্রটি খসে পড়ে। গতকাল ২২ শ্রাবণ (৬ আগস্ট, সোমবার) ছিল কবিগুরুর ৭৭তম প্রয়াণ দিবস। তার প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে ব্রিটিশ লাইব্রেরি থেকে সংগ্রহিত কিছু দুর্লব ছবি প্রকাশ করেছে কলকাতার এবেলা। যা আগে কারো হয়তো দেখা হয়নি।

robi

মহাজাতি সদনের প্রতিষ্ঠা দিবসে বক্তৃতা দিচ্ছেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, শ্রোতা সুভাষচন্দ্র বসু।

robi

শেষবারের মতো শান্তিনিকেতন ছাড়ছেন কবিগুরু। ১৯৪১ মাসের জুলাই মাসে ছবিটি তুলেছেন বিনোদ কোঠারি। সেই দিনই শান্তিনিকেতনে পড়তে এসেছিলেন এ গুজরাটি ছাত্র।

robi

কালিম্পং থেকে শান্তিনিকেতনের পথে রেলের কামরায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

চন্দননগরে নৌকায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

১৯৩১ সালে বিদ্যাসাগর স্মৃতি ভবন উদ্বোধন করতে যাচ্ছেন ডিস্ট্রিক্ট ম্যাজিস্ট্রেট বিনয়রঞ্জন সেনের সঙ্গে।

robi

১৯৩১ সালের ওই দিনই বিদ্যাসাগর স্মৃতি ভবনে বক্তৃতা দিচ্ছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তার সঙ্গে রয়েছেন যদুনাথ সরকার।

robi

মহাত্মা গান্ধী ও কস্তুরবা গান্ধীকে শান্তিনিকেতনে স্বাগত জানাচ্ছেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

জওহরলাল নেহরুর সঙ্গে ব্যক্তিগত আলাপচারিতায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

আকাশবাণীতে বক্তৃতা দিচ্ছেন কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

হেলেন কেলারের সঙ্গে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

ক্ষিতিমোহন সেন ও সাগরময় ঘোষের সঙ্গে শান্তিনিকেতনে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

রাসবিহারী বসুর সঙ্গে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

robi

কবিগুরুর মৃতদেহ ঘিরে সেদিন জনস্রোত সৃষ্টি হয়েছিল কলকাতায়।

Check Also

১৫ আগস্ট ইতিহাসের সবচেয়ে বিভীষিকাময় দিন : প্রধান বিচারপতি

ঢাকার ডাক ডেস্ক :  প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন বলেছেন, ১৫ আগস্ট ইতিহাসের বেদনাবিধুর ও বিভীষিকাময় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *