Saturday , September 22 2018
Home / ফটো গ্যালারি / বিশ্বসেরা যে ফুটবলাররাও কুসংস্কারে বিশ্বাস করেন

বিশ্বসেরা যে ফুটবলাররাও কুসংস্কারে বিশ্বাস করেন

স্পোর্টস ডেস্ক :  কলম্বিয়ার গোলকিপার রেনে হিগুইতা যেমন। তার বিশ্বাস ছিল, নীল রঙের আন্ডারওয়্যার পরে খেললে সাফল্য আসবেই।

জার্মান স্ট্রাইকার মারিও গোমেজ ম্যাচের আগে যান একদম বাঁ-দিকের টয়লেটে। তিনি মনে করেন এতে ভক্ত-দর্শকদের ভালো খেলা উপহার দিতে পারবেন।

জার্মান স্ট্রাইকার মারিও গোমেজ ম্যাচের আগে যান একদম বাঁ-দিকের টয়লেটে। তিনি মনে করেন এতে ভক্ত-দর্শকদের ভালো খেলা উপহার দিতে পারবেন।

মারিও গোমেজের সহ খেলোয়াড় হুলিয়ান ড্রাক্সলার ম্যাচের আগে পারফিউম মাখেন। তিনি মনে করেন এতে জয় আসবেই।

মারিও গোমেজের সহ খেলোয়াড় হুলিয়ান ড্রাক্সলার ম্যাচের আগে পারফিউম মাখেন। তিনি মনে করেন এতে জয় আসবেই।

ক্রীড়াবিদদের মনোবিদ ডান আব্রাহামসের বক্তব্য, ম্যাচের আগে প্রত্যেক খেলোয়াড় নিজের মত করে কিছু নিয়ম-কানুন পালন করেন। তাতে তাদের খেলায় ইতর বিশেষ কিছু হয় না কিন্তু মানসিকভাবে জোর পান তারা।

ক্রীড়াবিদদের মনোবিদ ডান আব্রাহামসের বক্তব্য, ম্যাচের আগে প্রত্যেক খেলোয়াড় নিজের মত করে কিছু নিয়ম-কানুন পালন করেন। তাতে তাদের খেলায় ইতর বিশেষ কিছু হয় না কিন্তু মানসিকভাবে জোর পান তারা।

ইংল্যান্ডের ফিল জোনস যেমন সাদা লাইনের ওপর দিয়ে হাঁটেন না। এটাকে তিনি জয়ের পথে হাঁটা মনে করেন।

ইংল্যান্ডের ফিল জোনস যেমন সাদা লাইনের ওপর দিয়ে হাঁটেন না। এটাকে তিনি জয়ের পথে হাঁটা মনে করেন।

ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মার্সেলো মাঠে নামার সময় প্রথমে ফেলেন ডান পা। তিনি বিশ্বাস করেন ডান পায়ে ভর করে সৌভাগ্য ফিরে আসবে।

ব্রাজিলের ডিফেন্ডার মার্সেলো মাঠে নামার সময় প্রথমে ফেলেন ডান পা। তিনি বিশ্বাস করেন ডান পায়ে ভর করে সৌভাগ্য ফিরে আসবে।

১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্সের গোলকিপার বার্থেজ তার ন্যাড়া মাথায় বারবার হাত বোলাতেন।

১৯৯৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্সের গোলকিপার বার্থেজ তার ন্যাড়া মাথায় বারবার হাত বোলাতেন।

বার্থেজের মাথায় চুমু খেতেন ডিফেন্ডার ব্লাঁ।

বার্থেজের মাথায় চুমু খেতেন ডিফেন্ডার ব্লাঁ।

Check Also

সুস্বাস্থ্যের জন্য জেনে নিন ডাবের পানির ১০ উপকারিতা

ডিহাইড্রেশন : অতিরিক্ত গরমের ফলে শরীরে ঘামের সঙ্গে প্রয়োজনীয় পানি বেরিয়ে যায়। আবার কখনও অতিরিক্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *