Home / লাইফস্টাইল / গিনেস বুকের অবাক করা ১০ রেকর্ড

গিনেস বুকের অবাক করা ১০ রেকর্ড

লাইফস্টাইল ডেস্ক : কত কিছুই না হয়ে থাকে বিচিত্র এই ভুবনে। আর অবাক করা এই মুহূর্তগুলো লিপিবদ্ধ হয় গিনেসের পাতায়। এমনই কিছু অদ্ভুত রেকর্ডের কথা জেনে নিন।

উপরের ছবির ডান পাশের লোকটির বিশেষত্ব হলো সে পুরো দুনিয়ার সবচেয়ে লম্বা মানুষ। নাম সুলতান কোসেন। গড়ে তার উচ্চতা ২৫১ সেন্টিমিটার। আর ঠিক তার বামে বসে থাকা চন্দ্র বাহাদুরের উচ্চতা মাত্র ৫৪.৬ সে.মি! তারপরেও তারা দুজন সব রকমের বিভেদ ভুলে নিজেদের হাত মুষ্টিবদ্ধ করেছেন। ছবিটি তোলা হয়েছে লন্ডনে।

উপরের ছবির ভারতীয় এই তরুণীর নাম জ্যোতি আমেগ। জ্যোতির সর্বমোট উচ্চতা ২৪.৭ ইঞ্চি। ছবিটি নিউ ইয়র্কের এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিংয়ের সর্বচ্চো চূড়ায় তোলা। এবং সে বছরই নিজের ১৮তম জন্মদিনে ‘ক্ষুদ্রকায় বেঁচে থাকা নারী’ হিসেবে উপাধি পান জ্যোতি। সব বাধা ফেলে নিজেকে গড়ে নিতেও প্রস্তুত এই নারী।

কত রকমের শখই না থাকে মানুষের। কেউ হয়তো ঘরের এক কোণে বইয়ের রাজ্য গড়ে তোলেন, কেউ বা আবার ঘুরে বেড়ান দেশ-বিদেশ। কিন্তু নিউ ইয়র্কের ক্রিস ওয়ালটনের শখটা একটু আলাদা। তিনি পছন্দ করেন হাতের নখগুলোকে বিশেষ আকৃতি দিতে। যেমন বর্তমানে তার এই নখের দৈর্ঘ্য ১০ ফুট ২ ইঞ্চিকেও ছাড়িয়ে গেছে। আর নিজের এই শখের নখগুলোকে তিনি বড় করছেন সেই ১৮ বছর আগে থেকে।

মানুষের গড় আয়ু কত? এটা নির্ভর করে দেশ, কাল এবং আবহাওয়ার উপর। সর্বোচ্চ নাহয় ৮০। কিন্তু সেটা যদি ১০০ ও ছাড়িয়ে যায়, তাহলে? হ্যাঁ, ছবির এই মানুষটির বয়স ঠিক তাই। হাতে গিনেস ওয়ার্ল্ডের রেকর্ড ধরে থাকা অ্যালেক্সান্ডার সবচেয়ে দীর্ঘায়ু লাভ করা একজন ব্যক্তি। ১৯৩৯ সালে নাৎসি বাহিনী তার মাতৃভূমি পোল্যান্ড দখল করে নিলে তিনি সেখান থেকে পালিয়ে আসেন। এবং ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান এতগুলো বছর!

ট্যাটু আঁকাতে অনেকেই পছন্দ করেন। কিন্তু পুরো শরীর জুড়েই যদি থাকে এই হরেক রকমের ট্যাটু, তাহলে? এমনটাই রেকর্ড করে দেখিয়েছেন স্পেনের ইসোবেল ভারলে।

ট্যাটু আঁকিয়েদের মধ্যে তিনিই সবচেয়ে বয়স্ক নারী।


উপরের ছবির এই ভদ্রলোকটিকে দেখুন। শীতের ভয়ডর বাদ দিয়ে উল্টো তুষারের মধ্যেই বসে আছেন। চায়নার জিলিন প্রদেশের তুষারপাত কিন্তু কোনও অংশেই তুচ্ছ নয়। আর সেই তুষারপাতের মধ্যেই জিন সনগাহো নামের এই ব্যক্তিটি টানা ৪৬ মিনিট ৭ সেকেন্ড কাটিয়ে দেন। এটা ছিল অন্যতম রেকর্ড।

উপরের ছবির আইসক্রিমের দাম ২৫ হাজার মার্কিন ডলার! ‘ফ্রোজেন হট চকোলেট’ নামের এই আইসক্রিমটির উপরের অংশে স্বর্ণের পাতলা পাত, যা খাবার যোগ্য। বর্তমানে এটাই সবচেয়ে ব্যয়বহুল আইসক্রিম।

ইংল্যান্ডের উত্তরে থাকা পিট গ্লেজব্রুক বেশ যত্ন নিয়েই চাষাবাদ করেন। তার হাতে থাকা ৮ কেজি ওজনের পেঁয়াজই সেটার প্রমাণ!
আলবেনিয়া প্রজাতন্ত্রের রাজধানী তিরানা শহর। আর সেখানেই করা হয়েছে নিচের এই শিল্পকর্মটি।

আর এই শিল্পকর্মটি পুরোটাই করা হয়েছে কর্কের ছিপি দিয়ে!  মোট ২ লাখ ৩০ হাজার ছিপি দিয়ে শিল্পটির জনক সেখানকারই এক অধিবাসী সাইমির স্ত্রাতি। আর এটি শেষ করতে তার সময় লেগেছে ২৮ দিন। এবং দিনের পুরো ১৮ ঘণ্টাই তাকে ব্যয় করতে হয়েছে এর পেছনে।

আর হ্যাঁ, সর্বশেষ এই ছবিটির মতো আপনি করতে পারবেন? একটু চেষ্টা করেই দেখুন না, থানেশ্বর গুরাগির মোট করা যায় কিনা?

তবে পুরো ২২.৪১ সেকেন্ড রাখতে হবে কিন্তু!

Check Also

নাক ডাকা বন্ধ করতে কী খাবেন?

লাইফস্টাইল ডেস্ক :  রোজ রাতে আপনার নাক ডাকার কারণে বিরক্ত পাশের মানুষটি? আপনার নাক ডাকা শুধু …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *