Home / রাজনীতি / খুলনায় ১৬ হাজার লোক সমাগমের টার্গেট ছাত্রলীগের

খুলনায় ১৬ হাজার লোক সমাগমের টার্গেট ছাত্রলীগের

ঢাকার ডাক ডেস্ক :  ছাত্রলীগের গৌরব ঐতিহ্য সংগ্রাম ও সাফল্যের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী বর্ণাঢ্যভাবে উদযাপন করা হবে। এ উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) খুলনায় ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নেওয়া হয়েছে।

ওইদিনে মহানগরীর শহীদ হাদিস পার্কের ১৬ হাজার নেতাকর্মীর সমাগম ঘটবে বলে টার্গেট ছাত্রলীগের।

বুধবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ছাত্রলীগ নেতারা।

খুলনা জেলা, মহানগর ও খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) ছাত্রলীগ যৌথভাবে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য দেন মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল, খুলনা জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি পারভেজ হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক মো ইমরান হোসেন, কুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি আবুল হাসান শোভন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় সদস্য মুজিবুর রহমান মুজিব, ছাত্রলীগ নেতা শাহীন আলম, চয়ন বালাসহ খুলনা জেলা, মহানগর ও কুয়েট ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বৃহস্পতিবারের অনুষ্ঠান সূচির মধ্যে রয়েছে আলোচনা সভা, সাবেক ছাত্রনেতা ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, বর্ণাঢ্য র‌্যালি এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান।

বিশেষ অতিথি থাকবেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সংসদ সদস্য তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ, জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য এমএস মোস্তফা রশিদী সুজা, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য মিজানুর রহমান মিজান।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি থাকবেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল, বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র শেখ সারহান নাসের তন্ময়, ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ।

প্রধান বক্তা থাকবেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ ও বিশেষ বক্তা থাকবেন সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন।

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করবেন খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন।

এর আগে ৪ জানুয়ারি ছাত্রলীগের ৭০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী হলেও ৩ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। ৩ জানুয়ারি দলীয় কার্যালয়ে কেক কাটা, ৪ জানুয়ারি দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা, দলীয় পতাকা উত্তোলন ও বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। ১৩ জানুয়ারি প্রয়াত ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মীদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

Check Also

ড. কামালের ব্যাংক হিসাব তলব

ঢাকার ডাক ডেস্ক  :    গণফোরাম সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন এবং …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *