Home / লাইফস্টাইল / শীতে খুশকি থেকে দূরে থাকবেন যেভাবে

শীতে খুশকি থেকে দূরে থাকবেন যেভাবে

 শীতে খুশকির উপদ্রব বাড়ে। এতে চুল পড়ার সমস্যাও বেড়ে যায়। রুক্ষ, শুষ্ক ও অপরিষ্কার চুলে খুশকি দেখা যায় বেশি। শীতে চুল খুশকিমুক্ত রাখতে কী কী করবেন জেনে নিন।


চুল পরিষ্কার রাখুন
শীতে ধুলাবালির প্রকোপ বেড়ে যায়। ফলে চুল নিয়মিত পরিষ্কার না রাখলে চুলের গোড়ায় ময়লা জমে সৃষ্টি হয় খুশকি। সপ্তাহে ২ থেকে ৩ বার শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধোয়া জরুরি। শ্যাম্পু যেন চুলের ধরন অনুযায়ী হয় সেদিকে লক্ষ রাখবেন।
চুল ব্রাশ করুন নিয়মিত
চুল পরিষ্কার রাখার পাশাপাশি নিয়মিত আঁচড়ানো জরুরি। প্রতিদিন কিছুক্ষণ ব্রাশের সাহায্যে চুল আঁচড়াবেন। এতে চুলের গোড়ায় জমে থাকা মরা চামড়া দূর হবে ও চুলের গোড়ায় রক্ত চলাচল বাড়বে। ফলে খুশকি দূর হওয়ার পাশাপাশি চুল দ্রুত বাড়বে। ব্যবহার করা ব্রাশ ও চিরুনি যেন পরিষ্কার থাকে সেদিকেও লক্ষ রাখবেন।
তেল ব্যবহার জরুরি
তেল চুল ও চুলের গোড়ার রুক্ষতা দূর করে। ফলে খুশকি থেকে দূরে থাকা যায়। অলিভ অয়েল অথবা নারকেল তেল সামান্য গরম করে ম্যাসাজ করুন চুলের গোড়ায়। ৫ থেকে ১০ মিনিট ম্যাসাজ করে গরম পানিতে তোয়ালে ডুবিয়ে সেটা মাথায় জড়িয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট পর তোয়ালে খুলে ৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন। মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। সপ্তাহে দুই থেকে তিনবার এভাবে তেল ব্যবহার করুন। চুল থাকবে খুশকিমুক্ত।
নিমের পানিতে চুল ধুয়ে নিন
৫ কাপ পানিতে মুঠো ভর্তি নিমপাতা ফুটিয়ে নিন। ঠাণ্ডা হলে পানিটুকু সংগ্রহ করুন। শ্যাম্পু শেষে চুল ধোয়ার পর এই পানি দিয়ে দিন চুলে। তোয়ালে দিয়ে চুল মুছে প্রাকৃতিক বাতাসে শুকান। সপ্তাহে কয়েকবার দ্রবণটি ব্যবহার করতে পারেন। নিমে থাকা অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান খুশকির জন্য দায়ী জীবাণু দূর করে ও চুল পড়া বন্ধ করে।
আপেল সিডার ভিনেগার ম্যাসাজ করুন
২ টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগারের সঙ্গে সমপরিমাণ পানি মেশান। মিশ্রণটি আঙুলের সাহায্যে চুলের গোড়ায় ম্যাসাজ করুন। ৫ মিনিট অপেক্ষা করে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল। সপ্তাহে দুই-তিনবার ব্যবহার করলে খুশকি থেকে দূরে থাকতে পারবেন।

Check Also

কনুই ও হাঁটুর দাগ দূর করবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক :  ঈদের আগে ত্বক ও চুলের যত্ন নেয়া জরুরি। তবে শুধু মুখেরই না, যত্ন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *